? ¿ টাইম ট্রাভেল কি সম্ভব ? ¿

Uncategorized

hi,,আমি দীপ।আমি এই সাইটে আগেও ছিলাম বাট জানেন তো ঘটনা কি হইছে।so।আজ আমি লিখছি টাইম ট্রাভেল নিয়ে তো শুরু করা যাক।

[img=296][color=red]।।।।।।।।।।******।।।।।।।।।।।।।।।।।।। টাইম ট্রাভেল।।।।।।।।।।।।।আধুনিক পদার্থ
বিজ্ঞানে
থিওরিটিক্যালি
টাইম ট্রাভেলিং
(সময় ভ্রমণ) পসিবল।
থিওরি অফ
রিলেটিভিটিতে
বলাই আছে কেউ যদি
অনেক দূরের কোন গ্রহ
বা নক্ষত্রে আলোর
কাছাকাছি বেগে
ভ্রমণ করে তবে সে
কয়েকশো বছর
ভবিষ্যতে যেতে
পারে আর এতে মাত্র
কয়েক বছর ব্যয় হবে।
সো বলাই যায় যে
ভবিষ্যতে ভ্রমণ করা
থিওরিটিক্যালি
পসিবল!!! কিন্তু অতীত?
আমি যদি এখন ৯০ এর
দশকে ফিরে যাই;
তার মানে এই হবে যে
আমি আমার অতীতে
ফিরে যাব! কিন্তু
যদি ৮০-র দশকে যাই?
তবে কি হইল? ওই
টাইমে তো আমার
জন্মই হয় নাই!
সায়েন্স ফিকশনে এই
ধরনের প্যারাডক্স
এড়াতে সাধারণত
দুধরনের পথ অবলম্বন
করা হয়:
১. আপনি অতীতে
যাবেন কিন্তু কিছু
বদলাতে পারবেন না।
ওই টাইমলাইন বাস্তব
নয় তবে প্রকৃতর সাথে
সমান্তরাল।
২. আপনি অতীত
বদলাতে পারেন আর
এতে করে বর্তমান
(ভবিষ্যৎ!!!) বদলে
যাবে!!
২ নং এর ক্ষেত্রে
সবচেয়ে বড় প্রশ্ন
তোলে যে কনসেপ্টটি
তার নাম হল
‘গ্র্যাণ্ডফাদার
প্যারাডক্স’ মনে
করেন, কেউ যদি
অতীতে গিয়ে তার
নিজের জন্মের আগেই
নিজের মা-বাবা-
দাদা-দাদিকে
(কিংবা এমনকি
নিজেকেই) হত্যা
করে আসে – তাহলে
তার টাইম-
ট্রাভেলটাই তো
মিথ্যা হয়ে যায়,
কেননা তার জন্মই
হয়নি। কিংবা ধরুন,
কেউ যদি মানব-
বিবর্তনের আদি
পর্যায়ে গিয়ে মানব
প্রজাতির পূর্ব-
প্রাণীগুলিকেই
নিকেশ করে দিয়ে
আসল যাতে এই
দুনিয়াতে আর কোন
প্রাইমেটই না জন্মায়
এবং ফলত
মানবজাতির অভ্যুদয়ই
না ঘটে – তখন টাইম-
ট্রাভেলের কি হবে?
ভবিষ্যতমুখী টাইম-
ট্রাভেলের
বেলাতেও এরকম কথা
চিন্তা করা যেতে
পারে। টাইম-
ট্রাভেলাররা
ভবিষ্যতে গিয়ে
ভবিষ্যতের অবস্থা
জেনে ফিরে এসে
নিজেদের বর্তমানের
কর্মকাণ্ড যদি এমন
ভাবে বদলে ফেলে
যাতে ঐ ভবিষ্যৎ আর
আদৌ না আসে, তখন
যে ভবিষ্যতে ওরা
গিয়েছিল ওটার কি
হবে? মিথ্যে হয়ে
যাবে, নাকি ওদের
টাইম-ট্রাভেলটাই
মিথ্যে হয়ে যাবে?
“মেনি ওয়ার্ল্ড
ইন্টারপ্রিটেশন ইন
কোয়ান্টাম
মেকানিক্স” ব্যবহার
করে গ্র্যান্ডফাদার
প্যারাডক্সের
ব্যাখ্যা দেয়া হয়
এভাবে, আমরা যে
মহাবিশ্বে আছি
সেরকম অসীম সংখ্যক
মহাবিশ্ব বর্তমান। এই
মহাবিশ্বগুলো প্রায়
একই রকম কিন্তু একটু
আলাদা। সেখানে
আমি আপনি সবাই
আছি কিন্তু একটু
আলাদা ধরনের। যেমন
এখানে আমি
মেটালহেড (মেটাল
গান লাভার), ওখানে
হয়ত হিপহপ (একধরনের
গান) লাভার!!
মনে করেন আমাদের
মহাবিশ্বে আপনি
একটা লুডুর ছক্কা ছুঁড়ে
মারলেন। ছক্কাটা
মাটিতে পড়ার পর
আপনি দেখলেন
উপরের পিঠে ৪
পড়েছে। অন্য
মহাবিশ্বের অন্য
আপনি দেখবেন
উপরের পিঠে ৩।
আরেক মহাবিশ্বের
আরেক আপনি দেখবেন
উপরের পিঠে ৬
পড়েছে!!!
সময় পরিভ্রমণ সম্ভব
হলে তা হবে মূলত এক
মহাবিশ্ব থেকে
আরেক মহাবিশ্বে।
অর্থাৎ সময় পরিভ্রমণ
করে আপনি যদি
অতীতে গিয়ে
আপনার দাদাকে
মেরে ফেলেন তাহলে
মূলত যা ঘটবে তা
হচ্ছে আপনি সময়
পরিভ্রমণ করে
আমাদের চেনাজানা
মহাবিশ্ব থেকে অন্য
মহাবিশ্বে চলে
যাবেন। সেখানে
গিয়ে উপস্থিত হওয়া
মাত্র সেই
মহাবিশ্বের
গতিপ্রকৃতি
পরিবর্তিত হয়ে
যাবে। সময়ের সাথে
সাথে আপনি যত
বিশৃঙ্খলা তৈরি
করবেন ততোই
মহাবিশ্ব দুটোর মধ্যে
পার্থক্যের পরিমাণ
বাড়তে থাকবে।
একবার সময় পরিভ্রমণ
শুরু হলে আপনি আর
কোনভাবেই আপনার
নিজের জগতে ফিরে
আসতে পারবেন না।
ভাইরে!!! মাথা হ্যাং
হইয়া গেল!! আরেকটা
থিওরিটিক্যাল
সমস্যার কথা বলে শেষ
করছি এই বোরিং
পোস্ট।
“ত্রিভুজ সমস্যা” –
সময়কে একটা ত্রিভুজ
হিসাবে ধরে নিন!!
তিনটা বিন্দু অতীত,
বর্তমান আর ভবিষ্যৎ।
আপনি যদি অতীতে
যান তবে সেটাই
আপনার বর্তমান আর
ভবিষ্যতে গেলেও
তাই। তাহলে বাকী
দুটা বিন্দুকে
কিভাবে এক্সপ্লেইন
করবেনএটার উত্তরে অনেক
মতবেদ রয়েছে।
ধার্মিকভাবে বলতে
গেলে টাইম ট্রাবেল
সম্ভব নয়।কেননা
সৃষ্টিকর্তাই একমাত্র
সময়ের উর্ধ্বে।তিনিই
জানেন অতীতে কি
হয়েছে এবং
ভবিষ্যতে কি হবে।
আবার যদি
বিজ্ঞানের দৃষ্টিতে
দেখি তাহলে টাইম
ট্রাভেল করার জন্য
আলোর চেয়েও অনেক
গতিতে যেতে হবে।
যা আজ পর্যন্ত সম্ভব
হয়নি।কিন্তু
ভবিষ্যতে যদি এমন
কিছু আবিষ্কার করা
যায় তাহলে টাইম
ট্রাভেল অসম্ভব কিছু
নয় পরর্বতী পোস্ট টাইম ট্রাভেল এর ঘটনা নিয়ে পোস্ট করবো।তোমারা যদি বলো।সবশেষে বলবো stay happy,,stay safe,,good bye[/color]

Leave a Reply